1. জাতীয়
  2. রাজনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলাধুলা
  5. বিনোদন
  6. তথ্যপ্রযুক্তি
  7. সারাদেশ
  8. ক্যাম্পাস
  9. গণমাধ্যম
  10. ভিডিও গ্যালারী
  11. ফটোগ্যালারী
  12. আমাদের পরিবার
ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪ , ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সড়কপথে যাতায়াত ব্যাবস্থায় দৃশ্যমান বানেশ্বর ঈশ্বরদী সড়ক, বাঁক থাকায় আশংকায় যান কর্তৃপক্ষ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপলোড সময় : ০৫-০৭-২০২৩ ০১:১১:৩৭ পূর্বাহ্ন
আপডেট সময় : ০৫-০৭-২০২৩ ০১:৩৩:৩৫ পূর্বাহ্ন
সড়কপথে যাতায়াত ব্যাবস্থায় দৃশ্যমান বানেশ্বর ঈশ্বরদী সড়ক, বাঁক থাকায় আশংকায় যান কর্তৃপক্ষ বানেশ্বর-ঈশ্বরদী রাস্তা

  আব্দুল কাদের নাহিদ ও শাহ্  সোহানুর রহমানঃ 
কাজ শুরুর ২ বছরে দৃশ্যমান হতে শুরু করেছে বানেশ্বর-ঈশ্বরদী রাস্তা। এরই মধ্যে লালপুর অংশের পুরোটাতেই প্রথম ধাপের পীচ ঢালাই সম্পন্ন হয়েছে। পিছিয়ে রয়েছে চারঘাট অংশের রাস্তার কাজ। চারঘাট লালপুর ও ঈশ্বরদীতে আলাদা আলাদা স্থানে কার্পেটিং সম্পন্ন হয়েছে৷

লালপুরের রাস্তার কয়েকটি কালভার্টের রং দেয়া দেয়ার কাজও শেষ। প্রশস্ত রাস্তায় দ্রুত সময়ে গোন্তব্যে পৌঁছাতে পারলেও পূ্র্ণ সুবিধা পেতে আরও সময় লাগবে বলে মন্তব্য জনসাধারণের। সিএনজি চালকরা বলছেন, এখন বাঘা থেকে ঈশ্বরদী যেতে ৩৫ থেকে ৪০ মিনিট সময় লাগে যা আগের তুলনায় অর্ধেক, আর বাঘা থেকে বানেশ্বর পৌছাতে সময় লাগে ৪০ থেকে ৫০ মিনিট। যে টুকু রাস্তা সম্পন্ন হয়েছে তাতে স্বস্তি পেয়েছেন গণপরিবহনের চালকরা।

রাজশাহীগামী বাসগুলোতে বাঘা থেকে বানেশ্বর যেতে সময় লাগে ১ ঘন্টা। বাঘা থেকে ঢাকাগামী বাসে ঈশ্বরদী পর্যন্ত সময় লাগে ৩৫ থেকে ৪০ মিনিট। বাঘা থেকে ঢাকাগামী সুপার সনি, ঈশ্বরদী ট্রাভেরস, পাবনা এক্সপ্রেস, রোকেয়া স্পেশাল ও রাজকীয় বাস কর্তৃপক্ষেরা জানান, রাস্তাটি প্রশস্ত হলেও বড় বড় কয়েকটি বাঁক রেখে দেয়ার কারণে ঝুকিতে রয়েছে যাত্রী ও পথচারির জীবন। এতে গাড়ি দূ্র্ঘটনার কবলে পড়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেশি৷ আবার গন্তব্যে পৌছাতে নির্দিষ্ট সময়ের থেকে বেশি সময় অপচয় হচ্ছে।

ড়ক ও জনপথ বিভাগ রাজশাহী সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর সাথে ঈশ্বরদীর রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও দেশের দক্ষিণ অঞ্চলের যোগাযোগ বৃদ্ধির লক্ষে একনেক সভায় ২০২০ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি বানেশ্বর থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ৫৫ কিলোমিটার সড়কটিকে আঞ্চলিক মহাসড়কে উন্নীতকরণে প্রকল্পটি অনুমোদন পায়। প্রকল্প চুক্তি অনুযায়ী ২০২২ সালের ডিসেম্বরে কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু জমি অধিগ্রহণ, পাথর ও বিটুমিন সংকটসহ নানা সমস্যার কারণে ২০২৪  সালের জুন পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে।

নিউজটি আপডেট করেছেন : Daily Sonali Rajshahi

কমেন্ট বক্স

এ জাতীয় আরো খবর

সর্বশেষ সংবাদ